1. admin@dailyjelapost.com : admin :
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:৫২ পূর্বাহ্ন

তাড়াইলে স্বামীর নির্যাতন ও প্রতারনার শিকার হয়ে ন্যায় বিচারের প্রত্যাশা 

  • আপডেট সময় : বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৪৪ বার পঠিত

ডেইলি জেলা পোস্ট নিজস্ব প্রতিবেদক

কিশোরগঞ্জ তাড়াইল উপজেলা সাররং গ্রামের
 ১ সন্তানের জননী দিনা বেগম স্বামীর নির্যাতনের শিকার। অসহায় জননী ন্যায় বিচারের প্রত্যাশায় মুখ খুলেছে বলে তাকে বাড়ী থেকে বের করে দেয়া হয়েছ বিচার চাইতে গেলে দেয় প্রাণনাষের হুমকি তার স্বামী। সরেজমিন ঘুরে এমনটাই অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ঘটনার সূত্রে যানা যায়, ইসলামী শরা বিধানমতে ইটনা উপজেলা পাথারকান্দি গ্রামের হাবিবুর রহমান এর কন্যা দিনা বেগম(২৩) এর সাথে তাড়াইল থানার সাররং গ্রামের আঃ মজিদ মিয়া পুত্র মোঃ আপেল মিয়া(২৬) এর সাথে বিয়ে হয়।
বিয়ের পর সংসার জীবনে তাদের ১ কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। মাইমুনা যার বয়স ৩ বছর ।
রোজগারের জন্য বিভিন্ন জেলা যাওয়া আসা র মধ্যে থাকেন। এরইমাঝে সে বিভিন্ন নারীদের সাথে সরাসরি ও মোবাইলে ভিডিও কলের মাধ্যমে অশ্লীল সম্পর্ক তৈরি করতে থাকেন। যা এক এক করে দিনা বেগমের সামনে ধরা পরতে থাকে। এক পর্যায়ে ২০২১ সালে স্ত্রী দিনা বেগমের অনুমতি ছাড়াই স্বামী আপেল মিয়া আশুগঞ্জের  এক মায়ের বয়সি নারীকে ১৫ বছরের ও ৭ বছরে  দুই কন্যা সন্তান সহ  নারীকে (৩৫) বিয়ে করেন।
আপেল মিয়া এ বিয়ে করার পর থেকেই প্রথম স্ত্রী দিনা বেগম কে কিভাবে ঘর ছাড়া করবে এমন ষড়যন্ত্রের জাল বুনতে থাকেন ।
স্বামীর বাড়িতে বসবাস করা তার ভাই বোন বাবা মা , ও দ্বিতীয় স্ত্রী সহ এলাকার কতিপয় অসাধু ব্যক্তিদের সাথে গোপন ভাবে।
২০২১ সালে এপ্রিলে মাসে দিনা বেগমকে তার বাবার বাড়ি জোড় পূর্বক পাঠিয়ে দেয় এবং বলে তুমি যাও আমি কদিন পর নিয়ে আসবো।
আপেল মিয়া গোপনে ফন্দি পাতে যাতে আর দিনা বেগম তার বাড়িতে আসতে না পারে।
এ কথা শুনে দিনা বেগম এর বাবা হাবিবুর রহমান নিরুপায় হয়ে এলাকার কজন সহ স্হানীয় মেম্বারকে বিষয়য়টি জানায় । তিনি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি হিসেবে পারুল মেম্বারকে বিষয়টি দেখার জন্য অনুরোধ করেন এবং শালিস বৈঠকে মেম্বার ও স্থানীয় গণ্যমান্যদের উপস্থিতিতে স্ত্রী ও সন্তানদের অধিকার আদায়ে সমর্থণ না করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানালে , আপেল মিয়ার, বাবা -মা ও তারই মামা ইছহাক মিয়া ,আঃ রাহাত মিয়া সহ  উপস্থিত  গন্যমান্য ব্যক্তিদের সামনে এক মাসের সময় নিয়েছিলেন বিগত ৮ মাসেও প্রতিকার হয়নি  ।
অপরদিকে আরো উপস্থিত ছিলেন দামিহা ইউনিয়নের ছাত্তার মেম্বার ,আলী আকবর , রন্জু ভূইয়া,হাবি মিয়া বিষয়টি মিমাংসার জন্য এলাকার গণ্যমান্যদের উপস্থিতিতে
বর্তমানে ১ সন্তানের জননী দিনা বেগম স্বামীর প্রতারনার শিকার হয়ে ন্যায় বিচারের আশায় এবং সকল সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মীদের সহযোগিতা কামনা করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Daily Jela Post
Theme Customized By Theme Park BD